রোজায় ডায়াবেটিস রোগীর খাদ্য ব্যবস্থাপনা ও করণীয়

টাইপ-২ ডায়াবেটিক রোগীদের বিশেষ কোন জতিলতা না থাকলে বেশীর ভাগ রোগী রোজা পালন করতে পারে।
এজন্য করণীয়-

• কখন কি পরিমান ইনসুলিন ইনজেকশন নিতে হবে বা টেবলেট খেতে হবে সেটা ভালভাবে আপনার চিকিৎসকের কাছ থেকে জেনে নিন। ইনসুলিন নির্ভরশীল রোগীর যদি প্রসাবে এসিটোন জয়ার প্রবণতা থাকে তাদের জন্য ডায়াবেটিস বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া রোজা পালন করা উচিৎ না।
• রোজার সময়ের জন্য বিশেষ খাবারের নিয়ম জেনে নিন। সেহরির খাবার শেষ সময়ের অল্প কিছু আগে খাওয়া বাঞ্ছনীয়। সেহরির সময় নামমাত্র পরিমাণে খাবার খেয়ে রোয়া রাখা উচিৎ নয়।
• রোজার দিনে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য অতিরিক্ত ব্যায়ামের প্রয়োজন নেই।
• রোজায় বিকলে দৈহিক পরিশ্রমের কাজ না করে বিশ্রাম নেয়া ভাল।
• রোজা রেখে রক্ত পরীক্ষা করা যাবে।
• রোজা রেখে ইনসুলিন নেয়া যাবে।

রোজার সময় খাবারের তালিকা (ক্যালরি ১৮০০)

ইফতার

বুট ভুনা ১ কাপের ৪ ভাগের ৩ ভাগ অর্থাৎ ১২০ গ্রাম
পিঁয়াজু বড় মাপের ৩ টি
বেগুনী মাঝারী মাপের ২ টা
মুড়ি ২ কাপ

শশা, খিরা, আমড়া, কচি পেয়ারা, ডাবের পানি, লেবুর সরবত চিনি ছাড়া ও অন্যান্য টক ফল ইচ্ছা মত খাওয়া যাবে।

সন্ধ্যা রাতে

আটার রুটি ছোট পাতলা ৩ টা অর্থাৎ ৯০ গ্রাম বা ভাত ১.৫ কাপ
মাছ বা মাংস ১ বা ২ টুকরা
ডাল ১ কাপ মাঝারী ঘন

সবজি (ক)- সব রকম শাক যেমন লাল শাক, পালং শক, পুঁই শাক, কলমি শাক, কচু শাক ইত্যাদি, ফুলকপি, বাঁধাকপি, মুলা, কাঁচা পেপে, কাঁচা টমেটো, শসা, করলা, ঝিংগা, চিচিংগা, পটল, চাল কুমড়া, লাউ, সাজনা, ধুন্দল, ইত্যাদি ইচ্ছেমত।

সবজি (খ)- এছাড়া আলু ছোট ১ টা, মিষ্টি কুমড়া ৯০ গ্রাম, কচু ছোট ২ টুকরা, বিট ছোট ১ টুকরা, কাঁচা কলা ১ টার অর্ধেক, বরবটি লম্বা ৬ টা, সিম ৬০ গ্রাম বা ৬ টা, কলার মোচা ৭৫ গ্রাম, গাজর ৫০ গ্রাম বা মাঝারী ১ টা, কাঁকরোল ২৫ গ্রাম বা ছোট ১ টা, সিমের বিচি ১০ গ্রাম বা ২০ টা, কাঁঠালের বিচি ১৫ গ্রাম বা ৭/৮ টা, শাল্গম ৯০ গ্রাম বা ছোট ১ টা, ঢেঁড়স ৭৫ গ্রাম বা ৮ টা, বেগুন ১৩০ গ্রাম বা মাঝারী ১ টা, মটরশুঁটি ৩০ গ্রাম, কচুর মুখী ২০ গ্রাম ছোট ২ টা, পঞ্চমুখী ১ টা, পাকা টমেটো ১ টা, এগুলোর মধ্যে যেকোনো একটি।

ভোর রাতে

ভাত ৩০০ গ্রাম বা ২.৫ কাপ
মাছ বা মাংস ১ বা ২ টুকরা
ডাল ১ কাপ মাঝারী ঘন বা দুধ ১ কাপ

সবজি (ক)- সব রকম শাক যেমন লাল শাক……ইত্যাদি ইচ্ছেমত।

সবজি (খ)- এছাড়া আলু ছোট ১ টা……ইত্যাদি এগুলোর মধ্যে যেকোনো একটি।

রোজার সময় খাবারের তালিকা (ক্যালরি ১৮০০)

ইফতার

বুট ভুনা ১ কাপের ২ ভাগের ১ ভাগ অর্থাৎ ৮০ গ্রাম
পিঁয়াজু বড় মাপের ২ টি
বেগুনী মাঝারী মাপের ১ টা
মুড়ি ১ কাপ

শশা, খিরা, আমড়া, কচি পেয়ারা, ডাবের পানি, লেবুর সরবত চিনি ছাড়া ও অন্যান্য টক ফল ইচ্ছা মত খাওয়া যাবে।

সন্ধ্যা রাতে

আটার রুটি ছোট পাতলা ২ টা অর্থাৎ ৬০ গ্রাম বা ভাত ১ কাপ
মাছ বা মাংস ১ টুকরা
ডাল ১ কাপ মাঝারী ঘন

সবজি (ক)- সব রকম শাক যেমন লাল শাক…… ইত্যাদি ইচ্ছেমত।

সবজি (খ)- এছাড়া আলু ছোট ১ টা…… ইত্যাদি এগুলোর মধ্যে যেকোনো একটি।

ভোর রাতে

ভাত ৩০০ গ্রাম বা ২.৫ কাপ
মাছ বা মাংস ১ বা ২ টুকরা
ডাল ১ কাপ মাঝারী ঘন বা দুধ ১ কাপ

সবজি (ক)- সব রকম শাক যেমন লাল শাক…… ইত্যাদি ইচ্ছেমত।

সবজি (খ)- এছাড়া আলু ছোট ১ টা…… ইত্যাদি এগুলোর মধ্যে যেকোনো একটি।

ডায়াবেটিস সম্পর্কিত আর কিছু তথ্য – অবশ্যই পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.